Logo
নোটিশ ::
Wellcome to our website...

কলমাকান্দায় প্রধানমন্ত্রীর উপহারের পণ্যসমাগ্রী ওজনের কম দেয়ার অভিযোগ

রিপোর্টারের নাম / ১৩৩ বার
আপডেট সময় :: সোমবার, ২৭ এপ্রিল, ২০২০

কলমাকান্দা  (নেত্রকোণা) প্রতিনিধি : করোনা ভাইরাস পরিস্থিতিতে জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর উপহার হিসেবে নিম্ম আয়ের মানুষের মাঝে ইউনিয়ন ভিত্তিক ৫০ হাজার টাকা বরাদ্দ দেয়া হয়েছে। প্রতি ইউনিয়নে ১০০ জনের মধ্যে ৫০০ টাকা সমমূল্যের। এরমধ্যে ২ কেজি আলু, ১ লিটার সয়াবিন তেল, ১ কেজি করে পেয়াজ, লবন, ছোলা (বুট) ও চিনি সহ মোট ৭ কেজি পণ্য সামগ্রী দেয়ার নির্দেশনা রয়েছে উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তার কার্যালয়ে।

কিন্তু তা বিতরনে ওজনে কম দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে নেত্রকোনার কলমাকান্দা উপজেলার রংছাতি ইউনিয়নের চেয়ারম্যান তাহেরা খাতুনের বিরুদ্ধে। বিতরনের সময় ট্যাগ অফিসার উপস্থিত থাকার নিয়ম থাকলেও তার অনুপস্থিতিতে বিতরন করা হয়েছে এসব উপহার সামগ্রী। এমনও অভিযোগ পেয়াজ থাকার কথা ১ কেজি সেখানে ৬৫০ থেকে ৭০০ গ্রাম, আলু থাকার কথা ২ কেজি সেখানে এক থেকে দেড় কেজি রয়েছে। পণ্যের ওজনে গড়মিল থাকায় ৭ কেজির স্থলে সাড়ে ৫ থেকে ৬ কেজি খাদ্য সামগ্রী প্রায় প্রতিটি প্যাকেটে রয়েছে। নির্দেশনা অনুযায়ী ৭ কেজি করে দেয়া হলে এর বাজার মূল্য ৩৫০ থেকে ৩৭০ টাকার বেশী হবে না এমন অভিযোগ ভূক্তভোগীদের। এ নিয়ে ভূক্তভোগীদের মাঝে চাপা ক্ষোভ বিরাজ করছে।

ওই ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ডের মেম্বার আ. রহিমের সাথে মুঠোফোনে কথা হলে তিনি জানান ১০০ জনে উপহার সামগ্রী পেয়েছে সত্য। কিন্তু প্রতিটি পণ্যে ওজনে কম রয়েছে এবং প্রতিটি প্যাকেটে ওজনে এক থেকে দেড় কেজি কম রয়েছে। প্যাকেটের বাজার মূল্য সর্বোচ্চ ৩০০ থেকে ৩৩০ টাকার বেশি হবে না।

ট্যাগ কর্মকর্তা দায়িত্বপালনকারী কলমাকান্দার পল্লী দারিদ্র বিমোচন কর্মকর্তা মো. গিয়াস উদ্দিন জানান, ট্যাগ অফিসার হিসাবে সব বিতরনে আমি থাকি। কিন্তু ওই ইউপি’র চেয়ারম্যান এই বিতরনের বিষয়টি আমাকে জানায়নি। পরে জানতে পেরেছে তিনি নিজেই টাকা তুলে তার মতো করে স্লীপ দিয়ে পণ্য বিতরন করেছেন। ইউএনও স্যার প্রতি ইউনিয়নে চারজন ট্যাগ অফিসার নিয়োগ দিয়েছেন। জানতে পেরেছি ওই চেয়ারম্যান তাদের কাউকেই জানায়নি।

এ বিষয়ে রংছাতি ইউপির চেয়ারম্যান তাহেরা খাতুনের সাথে মুঠোফোনের (০১৯৪০-৬৪১৬৯৪) একাধিকবার চেষ্টা করে সংযোগ পাওয়া সম্ভব হয়নি।

এ ব্যাপারে রবিবার উপজেলা নির্বাহীকর্মকর্তা  (ইউএনও) মো. সোহেল রানা স্থানীয় সাংবাদিকদের জানান, ওজনে কম দেওয়ার বিষয়টি শুনেছি ও  মৌখিক অভিযোগও পেয়েছি। সরকারি ত্রাণ বিতরনে কোন অনিয়ম প্রমানিত হলে কাউকে ছাড় দেয়া হবে না। তদন্ত সাপেক্ষে এ বিষয়ে সর্বোাচ্চ পদক্ষেপ নেওয়া হবে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর

Theme Created By ThemesDealer.Com