Logo
নোটিশ ::
Wellcome to our website...

দুই কলেজ ছাত্রীকে বেধরক পিটিয়ে আহত করলেন অধ্যক্ষ

রিপোর্টারের নাম / ২০৯ বার
আপডেট সময় :: রবিবার, ২৯ ডিসেম্বর, ২০১৯

সিলেট ব্যুরো : দুই কলেজ ছাত্রীকে কোদালের হাতল দিয়ে বেধরকভাবে পিটিয়ে আহত করলেন সুনামগঞ্জের এক অধ্যক্ষ। আহতরা হলেন, সুনামগঞ্জ সদর উপজেলার মঈসুল হক কলেজের এইচএসসি দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্রী শাখাইতি গ্রামের তাসলিমা খানম ও মাগুরা গ্রামের নাঈমা আক্তার।

শনিবার আহত ওই দুই ছাত্রীকে সুনামগঞ্জ সদর মডেল হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য ভর্তি করা হয়েছে। অভিযুক্ত’র নাম মতিউর রহমান। তিনি সদর উপজেলার মঈনুল হক কলেজের অধ্যক্ষ।

শনিবার এমন বর্বর ঘটনা জানাজানির পর, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে বিভিন্ন শ্রেণিপেশার লোকজন ও নেটিজেনরা অভিযুক্ত অধ্যক্ষ’র শাস্তির দাবিতে সরব হয়ে উঠেন।

আহত কলেজ ছাত্রীদ্বয় ও তাদের অবিভাবকগণ জানান, মঈনুল হক কলেজের এইচএসসি দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্রী তাসলিমা খানম ও নাঈমা আক্তার নির্বাচনী পরীক্ষায় অকৃতকার্য হন।

শনিবার দুপুরে ওই দুই ছাত্রী কলেজ ক্যাম্পাসে বাগান পরিচর্চার কাজে থাকা অধ্যক্ষ মতিউর রহমান কে, চুড়ান্ত পরীক্ষায় অংশগ্রহণে সুযোগ দিতে অনুরোধ জানাতে গেলে অধ্যক্ষ ক্ষিপ্ত হয়ে হাতে থাকা কোদালের হাতল (কাঠের তৈরীআছাড়) দ্বারা বেধরক ভাবে পিটিয়ে আহত করেন দুই ছাত্রীকে।

এ ঘটনায় কলেজের সাধারণ শিক্ষার্থীরা কলেজ ক্যাম্পাসে বিক্ষোভ মিছিল করে অধ্যক্ষের অপসারণ ও শাস্তির দাবি জানান।

এদিকে অধ্যক্ষের এই বর্বর আচরণে ক্ষুব্দ শিক্ষার্থীরা পরে ক্যাম্পাস থেকে বেড়িয়ে জয়নগর বাজারে বিক্ষোভ মিছিল করে তার শাস্তির দাবি করেন।

শনিবার রাতে আহত ছাত্রী তাসলিমা খানম বলেন, আমি একজন এতিম মেয়ে। অনেক কষ্ট করে লেখাপড়া করছি। স্যারকে অনুরোধ করতে গিয়েছিলাম আমরা দু’জন ছাত্রী। তিনি আমাদেরকে কোদালের হাতল দিয়ে পিটিয়ে শারিবীরক ভাবে আহত করলেন পাশাপাশী এ বর্বও ঘটনায় আমরা সামাজিক ভাবে কতটা হেয় হয়েছি তা বলার ভাষা রাখেনা।

অভিযোগ প্রসঙ্গে অধ্যক্ষ মতিউর রহমান শনিবার রাতে বললেন, আমি মারধর করিনি ছাত্রীদ্বয়কে অকৃতকার্য হওয়ায় তাদের চুড়ান্ত পরীক্ষায় অংশ গ্রহনে অন্যায় আবদারে সম্মত না হওয়ায় তারা এক বিশেষ মহলের ইন্দনে আমার বিরুদ্ধে অহেতুক কুৎসা ও গুজব ছড়াচ্ছেন।

সুনামগঞ্জ সদর মডেল থানার থানার ওসি মো. শহিদুর রহমান বলেন, আমি খবর পেয়ে দুই ছাত্রীর সঙ্গে হাসপাতালে গিয়ে তাদের সাথে কথা বলি পরবর্তীতে অধ্যক্ষর সাথেও কথা বলে পরস্পরবিরোধী বক্তব্য শুনেছি, এখন অভিযোগ পেলে পরবর্তীতে ব্যবস্থা নেয়া হবে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর

Theme Created By ThemesDealer.Com