Logo
নোটিশ ::
Wellcome to our website...

প্রধানমন্ত্রী কাল দুবাই যাচ্ছেন

রিপোর্টারের নাম / ৯৩ বার
আপডেট সময় :: শুক্রবার, ১৫ নভেম্বর, ২০১৯

দিগন্ত ডেক্স : দুবাই এয়ার শোতে অংশ নিতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আগামীকাল শনিবার চারদিনের সফরে সংযুক্ত আরব আমিরাতে যাচ্ছেন।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আবদুল মোমেন বৃহস্পতিবার সকালে তার দফতরে এক সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান। প্রধানমন্ত্রীর দুবাই সফর বিষয়ে জানাতে এ সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়। এ সময় তিনি সাংবাদিকদের আরও বলেন, কলকাতার ইডেন গার্ডেনে টেস্ট খেলা দেখতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে চিঠি দিয়ে আমন্ত্রণ জানিয়েছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। এছাড়া বিদেশে নারী শ্রমিকদের নিয়ে সরকারের বিপাকের কথাও সাংবাদিকদের জানান পররাষ্ট্রমন্ত্রী।

এ কে আবদুল মোমেন বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ১৬ থেকে ১৯ নভেম্বর আরব আমিরাত সফর করবেন। তিনি দুবাই এয়ার শোতে যোগ দেবেন। প্রধানমন্ত্রীর দুবাই সফরের সময় তিনটি সমঝোতা স্মারক সই হবে। এগুলো হচ্ছে- দুই দেশের বিনিয়োগ কর্তৃপক্ষের মধ্যে সহযোগিতা, দুই দেশের অর্থনৈতিক অঞ্চলের মধ্যে সহযোগিতা ও আরব আমিরাতে বাংলাদেশ দূতাবাসের স্থায়ী ভবন নির্মাণ।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে কলকাতার ইডেন গার্ডেনে অনুষ্ঠেয় বাংলাদেশ-ভারতের টেস্ট ক্রিকেট খেলা দেখতে আনুষ্ঠানিকভাবে আমন্ত্রণ জানিয়েছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। বুধবার চিঠির মাধ্যমে এ আমন্ত্রণ জানান তিনি। তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রীর এই সফর রাষ্ট্রীয় সফর হিসেবেই বিবেচিত হবে। প্রধানমন্ত্রীর সফরসঙ্গীরা রাষ্ট্রীয় অতিথির মর্যাদায় সে দেশে যাবেন। আবদুল মোমেন বলেন, পূর্বনির্ধারিত কর্মসূচি থাকার কারণে মোদি সেই অনুষ্ঠানে থাকতে পারবেন না বলেও চিঠিতে জানিয়েছেন। ২২ নভেম্বর কলকাতার ইডেন গার্ডেনে বাংলাদেশ-ভারত টেস্ট শুরু হবে। দিবা-রাত্রির এ ক্রিকেট খেলা হবে গোলাপি বলে।

মন্ত্রী বলেন, বিদেশে নারী শ্রমিক না পাঠানোর বিষয়ে সরকার কোনো সিদ্ধান্ত নেয়নি। বিদেশে তাদের (নারী শ্রমিক) চাহিদা আছে। তিনি বলেন, আমাদের দেশের আইন ভালো। কিন্তু এজেন্সিগুলো আইনের তোয়াক্কা করে না। আমি প্রবাসীকল্যাণ মন্ত্রীর সঙ্গে আলোচনা করেছি। তাকে অনুরোধ করেছি, নারী শ্রমিক পাঠানোর জন্য নিবন্ধন বাধ্যতামূলক করতে। পরিসংখ্যান উল্লেখ করে তিনি বলেন, বিদেশে বাংলাদেশের মোট ৬ লাখ নারী শ্রমিক কাজ করছেন, যার মধ্যে দুই লাখ সৌদি আরবে রয়েছেন। বেশির ভাগ অভিযোগ সেখান থেকেই আসে। আমাদের ৮ হাজার নারী কর্মী দেশে ফেরত এসেছেন। তাদের মধ্যে ৫৩ জন নারী কর্মীর মৃতদেহ এসেছে। কিন্তু আমরা জানি না, তাদের মধ্যে কে কে আত্মহত্যা করেছেন।

এ কে আবদুল মোমেন বলেন, নারী কর্মীরা নির্যাতিত হলে তাদের শেল্টার হোমে রাখা হয়। তাদের বলা হয়, তারা অভিযোগ করলে মামলা করা হবে। কিন্তু বেশির ভাগ ক্ষেত্রে তারা অভিযোগ করতে চান না। তবে দেশে ফিরলে তারা অভিযোগ করেন যে, তাদের অত্যাচার করা হয়েছে।

তিনি বলেন, আমরা বিদেশে শেল্টার হোম ও ২৪ ঘণ্টার হটলাইন চালু করেছি। যে কেউ নির্যাতনের অভিযোগ শেল্টার হোমে এসে কিংবা হটলাইনে ফোন করে জানাতে পারে।

বুধবার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের একটি কক্ষে আগুন লাগার বিষয়ে তিনি বলেন, আগুন লাগার সঙ্গে সঙ্গে ফায়ার সার্ভিসকে খবর দেয়া হয়। পাঁচ মিনিটের মধ্যে আগুন নেভানো হয়েছে। এতে কোনো ক্ষয়ক্ষতি হয়নি।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর

Theme Created By ThemesDealer.Com