Logo
নোটিশ ::
Wellcome to our website...

পাড়া-মহল্লার গলিতে ভিড়, মানছে না লকডাউন

রিপোর্টারের নাম / ৩৩৩ বার
আপডেট সময় :: রবিবার, ১৮ এপ্রিল, ২০২১, ১২:৫৭ অপরাহ্ন

দিগন্ত ডেক্স : দেশে করোনা আক্রান্ত এবং মৃত্যু হার বৃদ্ধি পাওয়ায় করোনা সংক্রমণ রোধে সারাদেশব্যাপী ৮ দিনের কঠোর লকডাউন ঘোষণা করেছে সরকার। আজ কঠোর লকডাউনের পঞ্চম দিন, আগামী ২১ এপ্রিল মধ্যরাত পর্যন্ত এই বিধিনিষেধ বহাল থাকবে। কিন্তু এই কঠোর লকডাউনের মধ্যেও নানা অজুহাতে ঘর থেকে বেরিয়ে পড়ছেন সাধারণ মানুষ। পাড়া-মহল্লায় অবাধে চলছে মানুষের চলাচল। বেশির ভাগ মানুষের মুখে নেই মাস্ক। নেই কোনো স্বাস্থ্যবিধির বালাই। রবিবার (১৮ এপ্রিল) কঠোর লকডাউনের পঞ্চম দিনে রাজধানীর বিভিন্ন স্থানে ঘুরে এমন চিত্র দেখা গেছে।

রাজধনীর বিভিন্ন গলিতে ঘুরে দেখা যায়, অনেক ক্রেতা বিক্রেতার মুখেই মাস্ক নেই। যে যার মতো করে কেনাবেচা করছেন। স্বাস্থ্যবিধি নিয়ে খুব বেশি সচেতনতা দেখা যায়নি তাদের মাঝে।

পাড়া মহল্লায় গাদাগাদি করে মানুষজন বাজার করছে। প্রয়োজনে অপ্রয়োজনে ঘুরাঘুরি করছে। মূলত সঠিক তদারকির অভাবে এমনটা হচ্ছে বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা। মাস্ক পরার বিষয়ে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের পক্ষ থেকেও বার বার সতর্ক করা হচ্ছে। কিন্তু কে শোনে কার কথা।
এক সব্জি বিক্রেতার মুখে মাস্ক নেই তা জানতে চাইলে তিনি বলেন, করোনা যদি হয় কোনও মাস্ক ঠেকাতে পারবে না। আর যদি না হয় কোনও কিছুতেই হবে না।

এক হোটেলের কর্মকর্তার নাম মো. শাহীন। তিনি হালিম বিক্রি করছেন। তার মুখে মাস্ক নেই, মাস্ক কেন পরেনি জানতে চাইলে তিনি বলেন, মাস্ক পরা আসলেই উচিত। তিনি বলেন, মাস্ক বাসায় রেখে আসছি। গোসল করার সময় গোসল খানায় রেখে আসছি। আনতে ভিলে গেছি।

রাস্তায় মাস্ক ছাড়া সব্জি বিক্রি করছেন মো. বেলাল। জানতে চাইলে তিনি বলেন, বাসায় রেখে আসছি।

রাস্তায় মাস্ক ছাড়া ঘোরাফেরা করছিলেন মো. ফারুক। জানতে চাইলে তিনি বলেন, সারাদিন বাসায় ছিলাম। বিকেলে বন্ধুরা সবাই বের হতে বলল। তাই বের হলাম। কিছুক্ষণ আড্ডা দিয়ে চলে যাবো।

বয়স্ক এক ক্রেতার মুখে মাস্ক না থাকার বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমি মাস্ক পড়ি, কিন্তু এখন বাসায় রেখে আসছি।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর

Theme Created By ThemesDealer.Com