Logo
নোটিশ ::
Wellcome to our website...

নেত্রকোনায় প্রবীণদের নিরাপত্তায় করণীয় শীর্ষক অনলাইন সংলাপ

রিপোর্টারের নাম / ১২৫ বার
আপডেট সময় :: বৃহস্পতিবার, ২৩ জুলাই, ২০২০

মো: অহিদুর রহমান, নেত্রকোনা থেকে : নেত্রকোনা সম্মিলিত যুব সমাজ এর আয়োজনে ও বারসিকের সহযোগিতায় করোনা মহামারি কালিন সময়ে প্রবীণ জনগোষ্ঠির নিরাপত্তার জন্য করণীয় শীর্ষক এক অনলাইন মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। মঙ্গলবার সকালে নেত্রকোনা অঞ্চলের সুধীজনদের নিয়ে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়।

সভায় উপস্থিত ছিলেন নেত্রকোনা সমাজকল্যাণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক জনাব আলাল উদ্দিন, বাংলাদেশ পরিবেশ আন্দোলন(পবা) চেয়ারম্যান জনাব আবু নাসের খান, নেত্রকোনা প্রেস ক্লাব সম্পাদক শ্যামলেন্দু পাল, হেলপ এইজ বাংলাদেশ প্রতিনিধি জনাব বেলায়েত হোসেন, নেত্রকোনা জেলা প্রবীণ হিতৈষী সংঘের জনাব ছায়েদুর রহমান, সহাকারী অধ্যাপক জনাব নাজমুল কবীর সরকার, আটপাড়া প্রবীণ কল্যাণ কেন্দ্রের আহŸায়ক জনাব সিদ্দিকুর রহমান, কলমাকান্দা থেকে বাবুল চক্রবর্তী, বারসিকের পরিচালক সৈয়দ আলী বিশ্বাস, আঞ্চলিক সমন্বয়কারী মো: অহিদুর রহমান, নেত্রকোনা জেলা জনসংগঠন সমন্বয় কমিটির সভাপতি জনাব সায়েদ আহমেদ খান বাচ্চু, রাজশাহী ও মানিকগঞ্জের আঞ্চলিক সমন্বয়কারী জনাব শহিদুল ইসলাম ও বিমল রায়, বারসিকের সকল স্টাফ, প্রবীণব্যক্তি, যুবক, কিশোরী দলের সদস্য সহগন।

আলোচনায় শুধু করোনা কালিন সময় নয়, সব সময়ের জন্য প্রবীণব্যক্তিদেও স্বাস্থ, বিনোদন, সামাজিক ও পারিবারিক নিরাপত্তা, সম্মান, মতামত, মূল্যায়ন, খাদ্য, পুষ্টি, অর্থনৈতিক নিরপত্তার কথা উঠে আসে। নেত্রকোনা জেলা প্রেসক্লাব সম্পাদক শ্যামলেন্দু পাল বলেন, আইন অনেক আছে কিন্তু আমরা যদি আইন না মানি তবে তা কোন কাজে লাগবেনা, ভাতা আনার জন্য প্রবীণরা ঘন্টার পর ব্যাংকে, চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে দাঁড়িয়ে থাকতে হয়। এই বিষয়টি অমানবিক।

পবার চেয়ারম্যান জনাব আবু নাসের খান বলেন, প্রবীণরা যাতে করে শারীরিকভাবে সফল থাকতে পারে ও অর্থনৈতিকভাবে স্বাবলম্বী থাকতে পারে তার জন্য কাজ করতে হবে,গ্রাম ও শহরের প্রবীণের জন্য আলাদা আলাদা ভাবে চিন্তা করা উচিত।

হেলপ এইজ‘র বাংলাদেশ প্রতিনিধি জনাব বেলায়েত হোসেন বলেন, প্রবীণরা অসহায় নয় তাঁরা সমাজের সম্পদ, তাদের জ্ঞান ও অভিজ্ঞতাকে আমাদের কাজে লাগাতে হবে, গ্রামে গ্রামে প্রবীণ বিনোদন কেন্দ্র ও ক্লাব করে তাঁদেরকে সক্রিয় রাখতে হবে।

সমাজকল্যান অধিদপ্তর নেত্রকোনা এর উপপরিচালক জনাব আলাল উদ্দিন বলেন, সমাজকল্যাণের কার্যক্রম করোনা কালিন সময়ে বন্ধ নেই। নেত্রকোনা অঞ্চলে ৫১১ জন প্রবীণ জনগোষ্ঠি যারা কঠিন রোগ ও শারীরিক সমস্যায় ক্ষতিগ্রস্থ তাদেরকে সহযোগিতা করা হয়েছে। নেত্রকোনা অঞ্চলে প্রবীণদের তালিকা তৈরীতে বারসিক সহযোগিতা করলে আমাদের কাজটি আরো সহজ হবে।

জেলা প্রবীণ হিতৈষী সংঘের সাধারণ সম্পাদক জনাব ছায়েদুর রহমান বলেন, প্রবীণরা সবসময় নিরাপত্তাহীন, বন্যা, খরা, প্রাকৃতিক দুর্যোগ, শেষ বয়সে এসে রোগে, চিন্তায়, বিনোদনের অভাবে, অবহেলায় দিন কাটে। আমাদের সরকারের উচিত প্রবীণদের প্রতি আরো সদয় হওয়া।

মতবিনিময় সভায় যে সুপারিশমালা উঠে আসে তা হলো: বয়স্কভাতার পরিমান বৃদ্ধি করা, প্রবীণ বীমা চালু করা, হাসপাতালে আলাদা ওয়ার্ড চালু করা, আশ্রয় কেন্দ্রে প্রবীণদের জন্য সুবিধা বাড়ানো, কোভিট-১৯ ভ্যাকসিন আসলে আগে প্রবীণদেরকে প্রদান করা, প্রবীণদেকে অর্থনৈতিক কাজের সাথে যুক্ত রাখা, বিনোদনের জন্য প্রবীণ বিনোদন কেন্দ্র স্থাপন করা, পরিবারে প্রবীণ সদস্যদের জন্য পুষ্টি সমৃদ্ধ খাবার নিশ্চিত করা, বন্যা ও পাহাড়ী এলাকায় বিশেষ মেডিক্যাল টিম রাখা, পরিবারে প্রবীণদের জন্য প্রবীণ বান্ধব আবাসন তৈরী করা। সবশেষে নেত্রকোনা প্রবীণহিতৈষী সংঘের সাধারণ সম্পাদক জনাব সায়েদুর রহমান সকলকে ধন্যবাদ জানিয়ে অনলাইন সংলাপের সমাপ্তি ঘোষণা
করেন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর

Theme Created By ThemesDealer.Com