Logo
নোটিশ ::
Wellcome to our website...

এমপিওভুক্তি নিয়ে জটিলতা, নীতিমালা পরিবর্তনের দাবি শিক্ষকদের

রিপোর্টারের নাম / ৬৪ বার
আপডেট সময় :: সোমবার, ২৫ অক্টোবর, ২০২১, ৯:০৪ পূর্বাহ্ন

দিগন্ত ডেক্স : নেত্রকোণাসহ সারাদেশে ডিগ্রি পাস কোর্সের এমপিওভুক্তির আবেদন নিয়ে বিপাকে পড়েছে ডিগ্রি স্তরের কলেজের শিক্ষকরা। শিক্ষা মন্ত্রণালয় কর্তৃক প্রণীত এমপিও নীতিমালা-২০২১ এ জটিল তথ্য যুক্ত থাকায় বিপাকে পড়েছেন সংশ্লিষ্ট কলেজগুলোর শিক্ষকরা। দীর্ঘদিন ধরে বিনা বেতনে মানবেতর সাথে জীবনযাপন করছেন এই সমস্ত কলেজে শিক্ষক-কর্মচারীগণ। আর এই সমস্ত শিক্ষকরা অনলাইনে এমপিও’র আবেদন করতে পারছে না। এই নীতিমালা জরুরি ভিত্তিতে শিথিল করে এমপিওভুক্তি আবেদন করার সুযোগ দেওয়ার দাবি জানাচ্ছে সংশ্লিষ্ট শিক্ষকগণ। তথ্য অনুযায়ী, সারাদেশে নন-এমপিও স্বীকৃতিপ্রাপ্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের এমপিও ভুক্তি জন্য অনলাইনে আবেদন শুরু হয় গত ১০ অক্টোবর থেকে যা ৩১ অক্টোবর পর্যন্ত চলবে।

সর্বশেষ এমপিও নীতিমালা ২০২১ বলা হয়েছে – স্নাতক পাস স্তরের এমপিও ক্ষেত্রে ন্যূনতম দুইটি বিভাগ চালু থাকতে হবে। অথচ পূর্বে এ রকম নিয়ম কখনোই ছিল না। শুরু থেকেই মানবিক,বিজ্ঞান ও ব্যবসায় শিক্ষা এই তিনটি বিভাগের মধ্যে যেকোনো একটি বিভাগ চালু থাকলেই এমপিও করার নিয়ম ছিল। গত ২০১৯ সালের ডিগ্রি পর্যায় এমপিও ক্ষেত্রে এ রকম বিধি ছিল না। কিন্তুু হঠাৎ করে এ রকম নিয়ম জুড়ে দেওয়াতে বিপাকে পড়েছে দেশের সকল এক বিভাগধারী স্নাতক (পাস) কলেজের শিক্ষক-কর্মচারী। তাছাড়া শিক্ষা মন্ত্রণালয় ও জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নিয়ম মেনেই এই সমস্ত উচ্চ মাধ্যমিক কলেজ থেকে ডিগ্রি শাখার খোলার ক্ষেত্রে পাঠদান স্বীকৃতি, অধিভূক্তি ও অধিভুক্তি নবায়ন করে থাকেন।

শিক্ষকরা মনে করেন সকল শর্ত পূরণ করার পরও শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সৃষ্ট এ রকম জটিলতায় ভুগছে শিক্ষকরা। অনলাইনে এমপিওভুক্তি আবেদন ফরমে দুইটি বিভাগ উল্লেখ থাকার কারনে বিপাকে পড়ছে শিক্ষকরা। চন্দ্রনাথ ডিগ্রি কলেজের ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগের শিক্ষক মারুফ হাসান মবিন বিডি২৪লাইভকে বলেন, ২০১৫ সালে চাকরিতে যোগদান করি। দীর্ঘদিন ধরে বিনা বেতনে মানবেতর সাথে জীবনযাপন করছি। এমপিওভুক্তি আশায় বুক বেঁধে স্বপ্ন দেখছি। এখনো আশায় আছি। কবে আমাদের ভাগ্যে পরিবর্তন আসবে জানি না।

মোহনগঞ্জ মহিলা কলেজে ইংরেজি বিভাগের শিক্ষক লিটন সরকার বিডি২৪লাইভকে বলেন, নীতিমালায় জটিলতার কারনে এমপিও আবেদন অনলাইনে করা যাচ্ছে না। এ রকম নিয়ম হঠাৎ করে দেওয়াটা যুক্তিসংগত না। এছাড়া জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃক বিভাগ খুলতে হলে এইচএসসি পর্যায়ে প্রতি বিভাগে কমপক্ষে ৫০ জন করে শিক্ষার্থী ও তিনটি সন্তোষজনক চূড়ান্ত ফলাফল থাকতে হয়। ফলে এখন যারা বিভাগ খোলার আবেদন করবেন তারা কমপক্ষে ৩ বছরের আগে বিভাগ খোলার অনুমতি পাবেন না। সে হিসেবে মন্ত্রণালয় দুটি বিভাগের সিদ্ধান্ত আরো ৩ বছর পরে নিলে যুক্তিযুক্ত ছিল। জটিল নীতিমালার কারণে গুটিকয়েক কলেজ ছাড়া দেশের সিংহভাগ এক বিভাগধারী ডিগ্রি কলেজই এমপিও পাবে না। ফলে এসব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক কর্মচারীগণ রাষ্ট্রীয়ভাবে চরম দুর্দশার শিকার হবে। তাই এ রকম নীতিমালা শিথিল করে শিক্ষকদের এমপিও আবেদন করার জোর সুপারিশ জানান।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরো খবর

Theme Created By ThemesDealer.Com